Webdesigntips

নতুনদের জন্য ওয়েব ডিজাইন এর উপর কিছু গুরুতপুরন টিপস

সবাই ওয়েব ডিজাইন এ সফল হতে চান কিন্তু সফল হয় হাতে গোনা কয়েকজন।

কিভাবে সফল হবেন ?

এখন কোনো কিছুই গোপন নেই। ওয়েব ডিজাইন শিখতে হয় একটানা বন্ধ না করে। যেখানে আপনি আশা করছেন,কিন্তু সম্ভাবনার সেই মুহূর্তে আপনি ব্যর্থ হলেন একবার,দুইবার,তিনবার কিন্তু তখনও আপনার থমকে যাওয়ার কোনো প্রয়োজন নেই। বিভিন্ন সমস্যার সম্মুখীন হওয়া এবং অনেক সময়ে মার্কেটিং সমস্যার সমাধান ওয়েব ডিজাইনের সাথে সম্পর্কিত। এটি আপনাকে সফল ওয়েব ডিজাইনার করতে সাহায্য করবে।

আজ আমরা শীর্ষ ২০ টি ওয়েব ডিজাইন টিপস শেয়ার করতে যাচ্ছি যা আপনাকে একজন সফল ওয়েব ডিজাইনার হতে সাহায্য করবে।

১.অনুশীলন সাফল্যর চাবিকাঠি :

এই সার্বজনীন সত্য যে কোনো পেশায় প্রয়োগ করা যেতে পারে। ওয়েব ডিজাইন এর সাথে সম্পর্কিত সফটওয়্যার সম্পর্কে জানুন এবং প্রোগ্রামিং ভাষাতে মাস্টার যেমনঃ HTML5 এর, সিএসএস 3, জাভাস্ক্রিপ্ট, jQuery এর, AJAX এর, পিএইচপি, ফটোশপ, এবং কোরেল।

২.সহজ ভাবে ডিজাইন করুন :

ওয়েব ডিজাইনগুলিকে আপনি যতটা সম্ভব সহজ রাখুন। আপনার ওয়েব ডিজাইন কোর্সে,আপনি যা শিখেছেন হতে পারে গ্রাফিক্স ডিজাইন এর ফটোশপ , কোরেল ইত্যাদি। আপনার ওয়েবসাইট এ আপনি সহজ গ্রাফিক্স যোগ করুন যাতে করে আপনি আপনার পাঠকদের কাছে বেপারটা আকর্ষণীয় হয়।

৩.গ্রাফিক্স ওয়েবসাইট সংক্ষিপ্ত করুন :

আপনার পাঠকদের জন্য আপনি গ্রাফিক্স ওয়েবসাইট এ ছবিটি এমন হবে যেটা খুব ছোট নয়, সেটা মাঝারি হতে হবে যাতে ইমেজ পরিষ্কারভাবে দেখতে সক্ষম হয়।

৪. পাঠকদের মনোযোগ যোগাযোগমূলক গ্রাফিক্স এ পেতে সাহায্য করুন :

এটি সর্বদা পরামর্শযোগ্য এবং যোগাযোগমূলক গ্রাফিক্স ব্যবহার করার জন্য প্রয়োজনীয় কিন্তু অনেক গ্রাফিক্স ওয়েবসাইটে ব্যবহার সম্পূর্ণরূপে ঝুঁকিতে ।

৫.আপনার ক্লিপ আর্ট তৈরি করুন :

আপনার ওয়েবসাইটটি আকর্ষণীয় করতে,আপনার নিখুঁত গ্রাফিক্স প্রয়োজন কিন্তু কখনও কখনও আপনি আপনার ওয়েব সাইটের জন্য ভাল কিছু পাবেন না।ফটোশপ দিয়ে আপনার নিজস্ব গ্রাফিক্স তৈরি করুন বা অন্য কোন টুল যেটা আপনি সবচেয়ে পছন্দ করেন।

৬.স্ট্যান্ডার্ড থিম ব্যবহার করুন :

বিভিন্ন ওয়েব পেজের জন্য বিভিন্ন স্টাইল ব্যবহার করবেন না। কন্সিস্টেন্ট এবং স্ট্যান্ডার্ডাইজেড থিম রাখুন আপনার ওয়েবসাইট এর জন্য। যাতে আপনার দর্শকরা আপনার ওয়েবসাইটে প্রতিটি সময় নেভিগেট করার সময় বিভ্রান্ত না হয় ।

৭.রিস্পন্সিভ ডিজাইন তৈরী করুন :

এই সময়ে রেস্পন্সিভ ডিজাইন সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং সহজে শিখে ফেলা যায় । আপনি রেস্পন্সিভ ডিজাইন বইটির সাহায্যে শিখতে পারেন এবং আপনার ওয়েবসাইট এ আপনি সবচেয়ে ভালো রেস্পন্সিভ থিম অন্তর্ভুক্ত করতে পারেন।

৮.সহজ এবং সাধারণ ন্যাভিগেশন ব্যবহার করুন :

ন্যাভিগেশন সহজ করুন, অভ্যন্তরীণ ও বাহ্যিক নেভিগেশান লিঙ্ক যেন আপনার পাঠকদের কাছে খুব দ্রুত দৃশ্যমান এবং উন্মুক্ত রাখুন।

৯. সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশান :

ইন্টারনেটে অনেক টিপস পাওয়া যায় আমরা বিস্তারিতভাবে আলোচনা করতে পারি না কিন্তু শিরোনাম, মেটা ট্যাগ এবং সেরা কীওয়ার্ডগুলির মূল বিষয়গুলি আপনাকে পরীক্ষা করতে হবে।

১০.ব্রাউজার কমপ্যাটাবল :

আপনার ওয়েবসাইটকে প্রায় সকল ওয়েব ব্রাউজার যেমন ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার, ফায়ারফক্স, গুগল ক্রোম, অপেরা, ইত্যাদি সামঞ্জস্যপূর্ণ করুন।

১১. পড়ার সময় অবশ্যই ওয়েবসাইট সহজ হতে হবে :

আপনার ওয়েবসাইট এ আকর্ষণীয় টেক্সট রাখবেন, যদি এটি সঠিকভাবে স্থাপন করা না হয় ,তাহলে আপনার দর্শকরা আপনার ওয়েবসাইট ছেড়ে চলে যাবে।সবসময় টেক্সট গুলা পড়ার জন্য সুন্দর ভাবে ফাঁকা রাখুন ।

১২.আপনি অনুসরণ করবেন কিন্তু কপি করবেন না :

শীর্ষ ওয়েব ডিজাইনার অনুসরণ করুন এবং আপনি যতটা পারেন তাদের কাছ থেকে শিখুন। এটি আপনাকে অনুপ্রাণিত করবে এবং একটি সফল ওয়েব ডেভেলপার হয়ে উঠতে সাহায্য করবে। অন্যের কোনো আর্টিকেল কপি করবেন না ,শুধুমাত্র তাদের কাছ থেকে শিখুন।

১৩.প্রফেশনাল ডিজাইনার হওয়ার জন্য,অন্য ডিজাইনারদের সাথে যোগাযোগ রাখুন :

আপনি যদি নবাগত বা অভিজ্ঞ ডিজাইনার হন না কেন ,আপনার উচিত হবে সবসময় অন্যান্য ডিজাইনার এর সঙ্গে যোগাযোগ রাখা।তারা আপনাকে অবশ্যই সাহায্য করবে ,আপনি ওয়েব ডিজাইন টিপস এবং ট্রিকস সম্পর্কে জানতে চাইলে আপনার সহযোগী ডিজাইনারকে জিজ্ঞেস করতে দ্বিধা করবেন না।

১৪. ফ্রিবিজ পান এবং তাদের ব্যবহার করুন :

এখন ইন্টারনেট থেকে ফ্রি ডাউনলোড করার জন্য প্রচুর মাধ্যম আছে। আপনি কাস্টমাইজড প্লাগইন পেতে আপনার ওয়েবসাইটে ব্যবহার করতে পারেন।

১৫.আপনার ডিজাইন প্যাশন তৈরি করুন :

আপনার নকশায় প্যাশন সৃষ্টি করুন এবং আপনার ক্যারিয়ার খুব সহজেই সফল হবে।আপনার অনুশীলন আপনাকে নিখুঁত করে তোলে, এই জন্য আপনাকে প্রাকটিস ,প্রাকটিস এবং প্রাকটিস করতে হবে,না হলে ছেড়ে দাও।

১৬.নতুন ডিজাইনারদের নিয়ে মজা করবেন না :

আপনি যদি প্রফেশনাল ডিজাইনার হন,তবে নবাগত ডিজাইনারদেরকে নিয়ে কখনোই মজা করবেন না।নবাগত ডিজাইনারদের সাহায্য করুন যাতে তারা বড়ো হতে পারে।নবাগত ডিজাইনারদেরকে সবসময় মাথা ঠান্ডা রেখে কাজ করতে হবে এবং ভালো ডিজাইনার হতে চাইলে।

১৭.নিজের ওপর বিশ্বাস আপনাকে কাজ সম্পর্কে পেশাদার করে তুলবে :

নিজের উপর বিশ্বাস রাখাটা সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। “বিশ্বাস” এই প্রেরণা ছাড়া আপনি কখনোই একজন সফল প্রফেশনাল ডিজাইনার হতে পারবেন না। এই জন্য সহজভাবে কাজগুলা করুন।

১৮.ট্রেন্ডি এবং সম্মান কপিরাইট :

সফল হওয়ার জন্য আপনাকে ট্রেন্ডি হতে হবে, সর্বদা আপনার ওয়েবসাইটের জন্য নতুন এবং প্রচলিত আর্টিকেল লিখুন। এটি আপনার ওয়েবসাইট এর পাঠক বাড়াতে সাহায্য করবে।
আপনি যদি প্রফেশনাল হতে চান তাহলে ইমেজ নিয়ে চিন্তা করতে হবে এবং অন্য কপিরাইট কে সন্মান দিতে হবে অবশ্যই লেখকের ক্রেডিট দিতে হবে ,যদি অনুমতি না পান তাহলে ইমেজ ব্যবহার না করা।যদি আপনি কোনও ফটোর লাইসেন্স সম্পর্কে নিশ্চিত না হন, তবে আপনার উচিৎ হবে এটি ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকা ।

১৯.গুণমান বিষয়বস্তু প্রকাশ করুন :

আপনি জানেন কি? আপনার ওয়েবসাইটে “কনটেন্ট ইজ কিং” এবং ওয়েবসাইটে চমৎকার গ্রফিক্স থাকা সত্ত্বেও আপনার পাঠকদের কাছে গ্রহণযোগ্যতা পাচ্ছে না। তাই আপনার ওয়েবসাইটের জন্য প্রায়ই গুণমানের কনটেন্ট লিখুন এবং প্রকাশ করুন। অন্যদের আর্টিকেল কপি করবেন না। সংক্ষিপ্ত কিন্তু কার্যকর কন্টেন্ট লিখুন।

২০.ব্যবহারকারী যেভাবে চাইবে সেভাবে ওয়েবসাইটটি আপডেট করুন :

এমনকি আপনার ওয়েবসাইটটি যদি চমৎকার দেখায় এবং সেরা গ্রাফিক্সও থাকে তারপরও আপনার ওয়েবসাইটটি বন্ধ হয়ে যেতে পারে ব্যবহারকারীদের জন্য। এই জন্য আপনাকে খেয়াল রাখতে হবে যে, আপনার পাঠকদের প্রতিক্রিয়া অনুযায়ী আপনার ওয়েবসাইট পরিবর্তন করুন ।

ওয়েব ডিজাইন শেখার জন্য আপনি এই সাইট গুলো থেকে নিজে নিজে ধিরে ধিরে চাইলে শিখতে পারবেন। এখানে সব সুন্দর করে বুঝানো হয়েছে

১। www.html.net
এই সাইটটা মুটামুটি অনেক সুন্দর এইখানে একটি ফ্লোর্চাটের মাধ্যমে দেখানো হয়েছে কোনটার পরে কোনটা আপনার শেখা উচিৎ । তাছাড়াও এই সাইটের আর্টিকেলগুলা মান সম্মত ।
২। www.css-tricks.com
এই সাইট সাধারনত এ্যডভান্স লেভেলের ব্যবহারকারীদের জন্য । আপনি সি. এস. এস এর বেসিক ধারনা নেওয়ার পরে এই সাইটটা দেখলে ভাল হবে। এরা এ্যডভান্স সি.এস.এস ও সি. এস. এস 3 নিয়ে আলচলা করে । তবে এটা বিগিনারদের জন্যেও ভাল একটা সাইট । সি. এস. এস এর নিগুরতম তত্ত্ব নিয়ে এখানে আলোচলা করা হয় ।
৩। www.alvit.de/handbook
এই সাইটটির নাম ওয়েব ডেভেলোপাস হ্যান্ড বুক অসাধারন একটি সাইট । এদের আরটিকেল গুলা অত্যান্ত সমৃদ্ধ । এই সাইটটা Lynda.com এ রেফার করা হয় রেফারেন্স হিসেবে।
৪। www.sitepoint.com
এদের বুঝানোর ধরনটা অনেক পরিষ্কার এবং উদাহর ভিত্তিক । যা আপনি খুব দ্রুতই বুঝতে পারবেন । সাবলিল ভাষায় উপস্থাপনের কারনে এই সাইটের ভিজিটর অকর্ষনের ক্ষমতা অনেক ।
৫। www.wpbeginer.com
এটা wordpress বিষয়ে খুব ভাল একটা সাইট । wordpress ট্রিক এবং টিপস নিয়ে এমন হাজার টা ওয়েব সাইট গুগুলে র্সাচ দিলেই খুজে পাবেন ।
৬। www.hongkoit.com
এটি দারুন একটি অরটিকেল রিচড ওয়েবসাইট ।
৭। www.it-ebooks.info
এই সাইটের কথা আর কি বলবো আপনি কল্পনাও করতে পারবেন না এরা হাজার টাকা দামের বই শুন্য টাকায় দেয় । এই সাইটটি মুলত বইয়ের সংগ্রহশালা । কম্পিউটার সাইন্সের অসাধারন অসাধারন বই এদের সংগ্রহে যা আপনি
amazon.com অথবা ebay.com এ কিনতে যান দেখবেন দুইশো নিতশো ডলার করে দাম । তাই আমি নিসন্দেহে এবং জরুরী ভিত্তিতে এই সাইটের ওয়েব ডেভেলপমেন্টের উপরে যে বইগুলি আছে সেই বইগুলি আপনার সংগ্রহে রাখার পরামর্শ দেই । বিশেষ করে এদের Head first Series এর কিছু বই আছে সেইগুলি দ্রুত সংগ্রহ করে নিন ।
আমি আশা করছি, এই শীর্ষ ওয়েব ডিজাইনের টিপস গুলো আপনাকে নতুন সফল ডিজাইনার হতে সাহায্য করবে। আশা করি লিখাটি আপনাদের ভালো লেগেছে যদি কোন ভুল থাকে তবে সেটি ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টি তে দেখবেন ।

 

লিখেছেন ঃ Ismatara Chamak

আমাদের ফেসবুক গ্রপ ঃ https://www.facebook.com/groups/independentit/

Write Your Comment

Ridoy Islam

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এবং ওয়ার্ডপ্রেস এর উপর সফলভাবে কাজ করছেন বেশ কয়েক বছর যাবত । তিনি সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন এর উপরেও কাজ করেন ।

Pin It on Pinterest

Shares
Share This