Download

জোকোয়েরি হচ্ছে জাভাস্ক্রিপ্টের একটা ফ্রেমওয়ার্ক

জোকোয়েরি হচ্ছে জাভাস্ক্রিপ্টের একটা ফ্রেমওয়ার্ক বা ফাংশন লাইব্রেরি।এখানে শত শত ফাংশন আগে থেকেই তৈরী করা আছে যা আপনি ব্যবহার করে আপনার সাইটকে আরও প্রানবন্ত করতে পারেন।এই কাজগুলি শুধু raw জাভাস্ক্রিপ্ট ব্যবহার করেও করতে পারবেন তবে এতে অনেক বেশি কোড লিখতে  হবে এবং প্রচুর সময় লাগবে।জেকোয়েরির মত আরও অনেক জাভাস্ক্রিপ্টের ফ্রেমওয়ার্ক আছে যেমন Mootools,Extjs,Dojo,Prototype ইত্যাদি। তবে জেকোয়েরি এবং এরপর মোটুলস এখন সবচেয়ে বেশি বিখ্যাত।জেকোয়েরি বিখ্যাত হওয়ার অনেক কারনের মধ্যে রয়েছে

-সব ব্রাউজার সাপোর্ট করে

-সহজ এবং বিস্তারিত ডকুমেন্টেশন বিদ্যমান

-প্রচুর প্লাগিন বিনামুল্যে পাওয়া যায়।

-সিএসএস ৩ এর সিলেক্টর সাপোর্ট

এছাড়াও আরও অনেক সুবিধা আছে।

জেকোয়েরি শেখার আগে যেসব ভাল জানতে হবে

১. এইচটিএমএল

২. সিএসএস (দক্ষ হতে হবে)

৩. জাভাস্ক্রিপ্ট

জেকোয়েরি দিয়ে যেসব করা হয়:

*বিভিন্ন সাইটে ড্রপডাউন মেনু দেখেছেন তো?এসব সাধারনত জেকোয়েরি দিয়ে করা।

*ইমেজ স্লাইডশো

*ট্যাব সিস্টেম

*যদিও জেকোয়েরি ব্রাউজার স্ক্রিপ্টিং তবুও এখানে এজাক্স ব্যবহার করে ডেটাবেস থেকে ডেটা তুলে আনা যায়,সাইট পুনরায় লোড হওয়া ছাড়াই।যেমন বিভিন্ন সাইটে দেখবেন রেজিস্ট্রেশনের সময় মেইল ফিল্ডে মেইল ঠিকানা দেয়ার সাথে সাথেই বলে দেয় যে এই মেইল ঠিকানা ইতোমধ্যে ব্যবহার করা হয়েছে বা এই ইউজার নাম আগেই নেয়া হয়েছে।এসব জেকোয়েরি এবং এজাক্স দিয়ে করা যায়।

জেকোয়েরি তে কাজ করার জন্য প্রথমেই ফ্রেমওয়ার্কটি ডাউনলোড করে আপনার এইচটিএমএল ফাইলে যুক্ত করে দিতে হবে।পিএইচপি ফ্রেমওয়ার্কের মত এখানে কোন কঠিন কনফিগারেশন নেই শুধু এক্সটার্নাল জাভাস্ক্রিপ্ট যেভাবে <script> ট্যাগ দিয়ে যোগ করে সেভাবেই জেকোয়েরির ফ্রেমওয়ার্কটি এইচটিএমএল ফাইলে   যোগ করলেই হবে (<head> ট্যাগের ভিতর)।

Write Your Comment

Pin It on Pinterest

Shares
Share This