ইন্ডিপেন্ডেন্ট আইটি

ফ্রিলান্সিং পেশায় সফল হতে হলে প্রধান বিসয় হচ্ছে নিজের দক্ষতা বৃদ্ধি করতে হবে। যারা সাধারনত কাজ দিয়ে থাকে তাদের মূল লক্ষ্য থাকে মানসম্মতভাবে তাদের কাজটি যেনো কেউ করে দেয়। তাই দক্ষতাই ফ্রীল্যান্স পেশায় সফল হবার মূলমন্ত্র। ফ্রীল্যান্সিং এ দক্ষ হতে হলে ভালোভাবে কাজ শিখা ছাড়াও আরো অনেক কিছুই লক্ষ্য রাখতে হবে। কেননা শুধু কাজ জানাই দক্ষতা নয়। আপনাকে একই সাথে সমস্যা সমাধান এবং নতুন নতুন চ্যালেঞ্জ এর মোকাবেলা করার জন্যও প্রস্তুত থাকতে হবে।

বাংলাদেশ এ  আমরা দক্ষ ফ্রিলানসারস তৈরী করার আশা প্রকাশ করছি। যারা কম্পিউটার চালাতে জানেন প্র তিযোগিতামূলক স্থান থেকে কাজ করার জন্য দৃঢ প্রতিজ্ঞ  তাদেরকে নিয়ে বড়ো ধরণের কমিউনিটি করতে চাই। অনলাইন এর জগতে শুধু কাজ করতে জানলেই হবেনা  আয় কররতে হবে নাহলে কেউ টিকে থাকতে পারবেনা  ইন্ডিপেন্ডেন্ট আইটি তার নিয়মিত ট্রেনিং প্রোগ্রাম এবং সামাজিক কার্যক্রমের মাধ্যমে .স্থানীয়  ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ওয়েবডিজাইন  করে  ব্র্যান্ড হিসাবে আত্মপ্রকাশ করতে চায়। এর রয়েছে শক্তিশালী সাপোর্ট টীম যার মাধ্যমে যারা ফ্রিলানসিং করতে চান তাদেরকে  সার্বিক সহযোগিতা করে আয়ের উৎস দেয়ার চেষ্টা করে যাবে। অনেক  কম্পিউটার প্রোগ্রামার এবং কম্পিউটার এ উচ্চ শিক্কিত রা বলেন সাধারণ প্রশিক্ষণার্থী কিভাবে বিড করে কাজ করবে।

এস ই ও এন্ড অ্যাফিলিয়েট মারকেটিং আইটি ট্রেনিং

আমাদের কোর্সসমূহ

এসইও এন্ড এফিলিয়েট মার্কেটিং

✓ ক্লাস সংখ্যাঃ   ২৪ টি

✓ কোর্স ফী : ১৬ হাজার টাকা

কোর্স আউটলাইন জানতে ক্লিক করুন

ওয়েব ডিজাইন এন্ড ডেভেলপমেন্ট

✓ ক্লাস সংখ্যাঃ   ৩৬ টি

✓ কোর্স ফী : ১৬ হাজার টাকা

✓ কোর্স আউটলাইন জানতে ক্লিক করুন

গ্রাফিক ডিজাইন

✓ ক্লাস সংখ্যাঃ   ২৪ টি

✓ কোর্স ফী : ১৬ হাজার টাকা

✓ কোর্স আউটলাইন জানতে ক্লিক করুন

এন্ড্রয়েড এপস ডেভেলপমেন্ট

✓ ক্লাস সংখ্যাঃ   ৩২ টি

✓ কোর্স ফী : ১৬ হাজার টাকা

✓ কোর্স আউটলাইন জানতে ক্লিক করুন

আমাদের বৈশিষ্ট্য

সকল কোর্সের সাথে ৪ টি ফ্রিল্যান্সিং এন্ড আউটসোর্সিং এর ফ্রি ক্লাশ

আউটসোর্সিং এর আয় করা টাকা কিভাবে আপনি পাবেন সেই প্রক্রিয়া আপনাকে দেখানো হবে
ফ্রিল্যান্সিং এন্ড আউটসোর্সিংকে প্রধান টার্গেট করে প্রশিক্ষণ প্রদান করানো হবে।
প্রতিটি ক্লাসে প্রয়োজনীয় ক্লাশ ভিডিও রেকর্ডিং এর মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের সরবরাহ করা হয়।এবং ক্লাস সংক্রান্ত রিসোর্স দিয়ে দেওয়া হয়(যেন কোন শিক্ষার্থী ক্লাস মিস করার পরও সে পরবর্তী ক্লাস নিতে পারে।)

কোন ক্লাসের প্রয়োজন অনুযায়ী ব্যাকআপ সাপোর্ট প্রদান করা হবে।

প্রতিটি লেকচারের পাশাপাশি প্রজেক্টরের মাধ্যমে লাইভ কাজ করে দেখানো হয়।

এছাড়া লাইফটাইম সাপোর্ট সুবিধা পাবেন প্রত্যেক শিক্ষার্থী।

প্রশিক্ষন শেষ এ লাইভ প্রজেক্ট এ কাজ করার সুযোগ পাবেন যা আপনাকে রিয়েল লাইফ এ প্রফেশনাল হিসেবে তৈরি করবে।
যারা ঢাকার বাইরে আছেন তাদের জন্য রয়েছে অনলাইনে ক্লাস করার সুবিধা।

   প্রত্তেক ব্যাচ থেকে ৩ জন কে আমাদের সিক্রেট ভার্চুয়াল টীম এ কাজ করার সুযোগ দেয়া হবে ।

admission-going-on

সোশ্যাল মিডিয়াতে আমরা

Pin It on Pinterest

Shares
Share This